dseসপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার (৩১ জুলাই) দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হয়েছে ৫০২ কোটি টাকা। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন হয়েছে ২৪ কোটি।

দিনভর সূচকের ওঠানামা শেষে এদিন ডিএসইতে লেনদেন বাড়লেও কমেছে সূচক ও বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম।

অপর বাজার সিএসইতে লেনদেন, সূচক ও বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে। তবে এর আগের কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) দেশের উভয় বাজারে মিশ্র প্রবণতায় লেনদেন হয়েছে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের নিষ্ক্রিয়তায় পুঁজিবাজারে নেতিবাচক প্রভাব এখনো অব্যাহত রয়েছে।

রোববার ডিএসইতে মোট ৩২৫টি সিকিউরিটিজের ১২ কোটি ৯২ লাখ ৭১ হাজার ২৭৭টি শেয়ারের হাতবদল হয়েছে। যা টাকার অংকে ৫০২ কোটি ৯৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা। এর আগেরদিন লেনদেন হয়েছিলো ৩৭৫ কোটি ৫৭ লাখ ৯৮ হাজার টাকার।

তিন সূচকে পথচলা ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের কার্যদিবসের চেয়ে ১২.৯১ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৫২৫.৩৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ১.২২ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৭৭০.২৮ পয়েন্ট এবং ডিএসইএস শরীয়াহ্ সূচক ২.০৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ১০৯.১০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩২৫টি সিকিউরিটিজের মধ্যে দাম বেড়েছে ১০১টির, কমেছে ১৭৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৮টির।

দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক আগের কার্যদিবসের চেয়ে ২৯.৭৯ পয়েন্ট কমে ৮ হাজার ৪৬৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

এদিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২৪ কোটি ৩০ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ৪২ কোটি ১৫ লাখ ৫৬ হাজার টাকার।

লেনদেন হওয়া ২৫২ সিকিউরিটিজের মধ্যে দাম বেড়েছে ৬৫টির, কমেছে ১৫৩টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৪টির শেয়ারের দাম।

LEAVE A REPLY