বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান ও হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ বলেছেন,capture12প্রতিমাসে জনগনের কাছ থেকে বিদ্যুত ও গ্যাসের বিল নেয়া হচ্ছে অথচ রান্নার চুলা থাকে গ্যাস শূন্য। জনগনের জন্য গ্যাস ও বিদ্যুত সরবরাহ নিশ্চিত না করে দাম বাড়ানো জনগনের উপর রাষ্ট্রিয় জুলুম ছাড়া আর কিছুই নয়। সরকারের সংশ্লীষ্ট এমপি, মন্ত্রী ও আমলাদের দুর্নীতির কারণে জনসাধারন গ্যাস ও বিদ্যুত থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। আবার মরার উপর খাড়ার ঘাঁ। ধাপে ধাপে বিদ্যুত ও গ্যাস বিল বাড়ানো হলেও ঘন ঘন লোড শেডিংয়ে জনজীবন অতিষ্ট। সরকারের দুর্নিতীর দায় জনগন কখনো নেবেনা। সাধারন গ্রাহকদের জন্য গ্যাস ও বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত না করে আবার মুল্য বাড়ানো হলে জনগন সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে রাস্তায় নামতে বাধ্য হবে।
আজ ৪ঠা মার্চ মঙ্গলবার  বাদ আসর রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর জামিয়া নুরিয়া মাদরাসায় ওলামায়ে কেরাম ও সুধীজনদের সাথে মতবিনীময় কালে তিনি এইসব কথা বলেন, এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলের মহাসচিব মাওলানা জাফরুল্লাহ খান, মাওলানা সুলাইমান নুমানী, মাওলানা হাবিবুল¬াহ মিয়াজী, মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মুফতি ফখরুল ইসলাম,মাওলানা আবু জাফর কাসেমী , মাওলানা সুলতান মহিউদ্দিন, মাওলানা রহমতুল্লাহ,মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী , হাফেজ মাওলানা ওয়ালি উল্লাহ, হাফেজ মাওলানা আবুল কাসেম ও মাওলানা মাসুদুর রহমান প্রমুখ।
মাওলানা আশরাফ আরো বলেন, সরকার ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য কর্মচারিদের বেতন বৃদ্ধিকরে সে রিনের ভোঝা জনগনের উপর চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে। জনগনের আন্দোলনের মুখে তার মন্ত্রী-আমলারা তাকে টিকিয়ে রাখতে পারবে না।
মাওলানা জাফরুল্লাখান বলেন, জনগনের ন্যাহ্য পাওনা বিদ্যুত ও গ্যাস না দিয়ে প্রতিমাসে জনগনের ঘাড়ে অতিরিক্ত বিল চাপিয়ে দিয়ে দেশের সাধারন মানুষের উপর জুলুম করা হচ্ছে। একান্তই যদি গ্যাস ও বিদ্যুত বিল বাড়াতে হয় তাহলে সরকার তার ভর্তূকি দিবে।

LEAVE A REPLY